35 C
Dhaka
Sunday, April 14, 2024

সখীপুরে এসএসসি-৯৯ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন-এর নতুন কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুরে এসএসসি-৯৯ ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন-এর...

সখীপুরে একসঙ্গে জন্ম দিলেন ৪ ছেলে ২ মেয়ে, একঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যু!

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুরে এক গৃহবধু একসঙ্গে...

বাংলাদেশে ঈদ সৌদি আরবের একদিন পরে হওয়ার কারণ কী?

আমরা সেই ছোট বেলা থেকেই দেখে আসছি...

‘খুব শীঘ্রই চলে যাবো, সুবীর দা বলেছিলেন’

অন্যান্যসাহিত্য‘খুব শীঘ্রই চলে যাবো, সুবীর দা বলেছিলেন’

বিনোদন বার্তাঃ ‘কিছু জিনিস আছে তা নিয়ে অনেক কথা বলা যায়, আর কিছু জিনিস আছে নির্বাক করে যায়। সুবীর দা ( সুবীর নন্দী) একজন দিকপাল ছিলেন। তাকে নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে বলে শেষ করা যাবে না। তবে তিনি আমাদের একজন দিকপাল ছিলেন।’ এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন দেশের জনপ্রিয় গায়ক মনির খান।

প্রিয় সহকর্মীর চলে যাওয়ার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে অনেকটা আবেগ প্রবণ হয়েই মনির খান বলেন, গত মাস দুয়েক আগেই আমরা রুনা আপার (রুনা লায়লা) বাসায় আমি, সৈয়দ আব্দুল হাদি ভাই, রফিকুল আলম,আলম খান ভাই, আখী আলমগীরসহ  আরও অনেক বরেণ্য ব্যাক্তি উপস্থিতে আমাদের আড্ডা ছিলো। সেখানে আমাদের প্রিয় দাদা সুবীর দাও ছিলেন।

সেদিন সুবীর দা আমার কাধে হাত রেখে বলেছিলেন, আমার শরীরটা খারাপ, আমি তো চলেই যাবো তবে তোমরা যারা আছো আমার ছোট ভাইয়ের মতো তোমরা এই দেশটাকে ভালোবাসা দিও। দেশের মানুষের জন্য কিছু করো। কারণ আজ আমি সুবীর নন্দী হয়েছি দেশের মানুষের কারণে। আমি চলে গেলে এই দেশের মানুষই আমাকে গানের মাধ্যমে বাঁচিয়ে রাখবে। তাই তোমরা যারা আমার ছোট ভাই তারা সকলে দেশটাকে দেখে রাখিও। তোমাদেরও এই দেশের মানুষ গানের মাধ্যমে বেঁচে রাখবে।

আবেগে আপ্লুত হয়ে মনির খান জানান, ‘দেশের মানুষের জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য কিছু করিও এদেশটাকে কিছু দিও, আমি আর থাকবো না হয়তো খুব শীঘ্রই চলে যাবো। হয়তো মৃত্যুর বিষয়ে জেনে এভাবে আমাক কথাগুলো বলেছিলেন তিনি।’

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৪টায় সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য সংগীত শিল্পী সুবীর নন্দী।

দীর্ঘদিন ধরে কিডনি ও হার্টের অসুখে ভুগতে থাকা সুবীর নন্দী গত ১৪ এপ্রিল সিলেট থেকে ঢাকায় আসার পথে শ্রীমঙ্গলে প্রথম দফায় হার্ট অ্যাটাক করেন। এরপর স্থানীয় ডাক্তারদের পরামর্শে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে ভর্তি করার পর আরেক দফায় আবারও হার্ট অ্যাটাক করলে তাকে নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়। এক পর্যায়ে লাইফ সাপোর্টও দেওয়া হয়।

সিএমএইচে ১৮ দিন হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করার পর গত ৩০ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে নেওয়া হয়। সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে সেদিনই এই শিল্পীর চিকিৎসা শুরু হয়। কিন্তু হাসপাতালের এমআইসিউতে চিকিৎসাধীন সুবীর নন্দীর শারীরিক অবস্থার ক্রমেই অবনতি হতে থাকে। সিঙ্গাপুরে নেওয়ার পর একাধিকবার হার্ট অ্যাটাক হয় সুবীর নন্দীর। পরে আজ ভোরে তিনি মারা যান।

(আমাদেরসময়.কম থেকে নেয়া)

post by Sunny

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles