31 C
Dhaka
Monday, July 15, 2024

সখীপুর পৌরসভার বাজেট ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার ২০২৪-২৫ অর্থ...

সখীপুর পৌরসভার প্রাক বাজেট ঘোষণা 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সখীপুর পৌরসভার প্রাক বাজেট ঘোষণা...

সখীপুরে সর্বজনীন পেনশন স্কিম বাস্তবায়নে উদ্বুদ্ধকরণ সভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুরে সর্বজনীন পেনশন স্কিম...

ডিসি-রিগ্যান ফোনালাপ ফাঁস অসুস্থ রিগ্যান হাসপাতালে, যোগদান করেননি নতুন ডিসি

জাতীয়ডিসি-রিগ্যান ফোনালাপ ফাঁস অসুস্থ রিগ্যান হাসপাতালে, যোগদান করেননি নতুন ডিসি

বার্তা ডেস্কঃ কুড়িগ্রামে মধ্যরাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজাপ্রাপ্ত ও নির্যাতনের শিকার সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যান এখনও কুড়িগ্রামে জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রিগ্যান জানিয়েছেন, তার ডান হাতে ফাটল ধরা পড়েছে। এছাড়া সারা শরীরে ব্যথা ও মানসিকভাবে আতংকে দিন কাটছে তার।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আরিফুলকে পরীক্ষা নিরীক্ষা ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের সাথে সাংবাদিক আরিফুল ইসলামের একটি ফোনালাপ ফাঁস হওয়ায় তা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। এদিকে ঘটনায় প্রত্যাহারকৃত জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীনের স্থলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়োগকৃত নতুন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম এখনও যোগদান করেননি। আগামী বৃহষ্পতিবার তিনি যোগদান করতে পারেন বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরিফুল ইসলাম রিগ্যান জানান, সোমবার এক্সরে রির্পোটে তার ডান হাতে ফাটল ধরা পড়েছে। চিকিৎসকরা ওষুধ ও ব্যান্ডেজ দিয়েছেন। দু’সপ্তাহ চিকিৎসা নিতে হবে। এ ছাড়া তার হাত, পা ও বুকে মারের ক্ষত রয়েছে। এখনও সারা শরীরে ব্যথা।  ঠিকমত হাঁটতে পারছেন না আরিফুল।

কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আবু মো: জাকিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে আরিফুলের চিকিৎসা চলছে। প্রয়োজনীয় সব চিকিৎসা রয়েছে। তার শরীরের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

নাজিম উদ্দীনের শেষ কামড়
সাংবাদিক আরিফুলকে নির্যাতনের হোতা সিনিয়র সহকারী কমিশনার নাজিম উদ্দীন জামিনপ্রাপ্ত এক আসামীকে ভোরবেলায় জেল থেকে অফিসে এনে জোড়পূর্বক স্বীকারোক্তি আদায় করেন। মঙ্গলবার এ ঘটনা ঘটে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজাপ্রাপ্ত আসামী বিশ্বনাথ অভিযোগ করে বলেছেন, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি আরডিসি নাজিম উদ্দীন নাগেশ্বরী উপজেলার ভিতরবন্দ ইউনিয়নের দেবিপুর গ্রামে এক অভিযান চালিয়ে সরকারি বিলে মাছ চাষের
অভিযোগে বিশ্বনাথ ও বৃদ্ধ মজনু মিয়াকে ধরে এনে ২ বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেন। এ সময় বিশ্বনাথকে মারধর করলে তার কাকা বাবলু নমদাস প্রতিবাদ জানান। এ কারণে তাকে কিল, ঘুষি ও লাথি দেন কমিশনার নাজিম উদ্দীন। পরদিন মজনু মিয়া আদালত থেকে জামিন নিলেও বিশ্বনাথের মামলার নথি নিতে গেলে গালিগালাজ করে ফিরিয়ে দিয়েছেন তার স্বজনদের।

সোমবার বিশ্বনাথের স্বজনরা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো: সুজাউদ্দৌলার কাছে অভিযোগ করে নথি তোলেন এবং জামিন আবেদন করেন। তিনি জামিন মঞ্জুর করলেও সন্ধ্যা হওয়ায় জেল থেকে মুক্ত হননি। সোমবার ভোর ৬টায় আরডিসি নাজিম উদ্দীনের ড্রাইভার বিশ্বনাথকে জেল থেকে বের করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের দোতলায় একটি কক্ষে নিয়ে যায়।

সেখানে আরডিসি তাকে ক্রস ফায়ারের ভয় দেখিয়ে তাকে নির্যাতন করা হয়নি মর্মে জোড় করে স্বীকারোক্তি আদায় করে রেকর্ড করে নেন। পরে র‌্যাবের ভয় দেখিয়ে বাসযোগে রংপুরে পাঠাতে চান। কিন্তু বিশ্বনাথ বেঁকে বসায় তা সম্ভব হয়নি। পরে শহরের খলিলগঞ্জ এলাকায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে নাজিম উদ্দীনের সাথে কথা বলার জন্য একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

অডিও নিয়ে তোলপাড়
এদিকে জেল থেকে জামিনে মুক্ত হবার পর আরিফুল ইসলাম রিগ্যানের সাথে জেলা প্রশাসকের ফোনালাপ ফাঁস হওয়ায় তোলপাড় চলছে। কথোপকথনে রিগ্যান জানতে চান তিনি এনকাউন্টারের মতো অপরাধ করেছেন কি না?

জেলা প্রশাসক জবাবে বলেন, ‘এনকাউন্টারের মনোভাব আমাদের আসলেই ছিলো না।’ রিগ্যান তার ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলে জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন বলেন, ‘তোমার ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত হবার কিছু নেই। নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত হবার কিছু নেই। ভালো থাকবে ইনশাআল্লাহ। চারটি সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার ঘটনা উল্লেখ করে রিগ্যান সেগুলো ফেরৎ চান।

জবাবে জেলা প্রশাসক কাগজ ফেরৎ দেয়া আশ্বাস দেন এবং বলেন, ‘তোমার মামলা প্রত্যাহার করে দিবো। একটু সময় দিবা। একটা দুইটা শুনানি লাগবে। তোমার চাকরির ব্যাপারে টেনশন করিও না।

সূূূত্রঃ সময়ের আলো অনলান।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles