29 C
Dhaka
Monday, April 22, 2024

সখীপুরে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়, জেলা শিক্ষা অফিসের তদন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার লাঙ্গুলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের...

সখীপুরে শালবন ছাত্র কল্যাণ সংসদের কমিটি গঠন 

নিজেস্ব প্রতিবেদক: সখীপুরের কাকড়াজান ইউনিয়নে বড়বাইদ পাড়ায়...

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কে‌টে ফেলেছেন স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের ভুঞাপু‌রে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ...

নির্বাচনীতে অকৃতকার্য হলে পাবলিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না

বাংলাদেশেশিক্ষানির্বাচনীতে অকৃতকার্য হলে পাবলিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না

বার্তা ডেস্ক: মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে নির্বাচনী (টেস্ট) পরীক্ষায় অকৃতকার্য পরীক্ষার্থীরা পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে এ সংক্রান্ত একটি আদেশের চিঠি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের কাছে পাঠানো হয়েছে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর তপন কুমার সরকার স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়, এসএসসি ও এইচএসসি নির্বাচনী পরীক্ষায় এক বা একাধিক বিষয়ে অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মূল পরীক্ষায় অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়া যাবে না। এছাড়া নির্বাচনী পরীক্ষার উত্তরপত্র ছয় মাস সংরক্ষরণ করতে বলা হয়েছে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের। বোর্ড সূত্র জানায়, মূলত প্রশ্ন ফাঁস রোধের একটি অংশ হিসেবেই এই আদেশ জারি করা হয়েছে। সাধারণত মেধাবী শিক্ষার্থীরা প্রশ্ন ফাঁসের পেছনে ছুটে না। যারা দু’তিন বিষয়ে ফেল করে তারাই আগে থেকে প্রশ্নের পেছনে ছুটে। এই আদেশের মাধ্যমে এখন থেকে অনুত্তীর্ণদের আর চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংগ্রহণের সুযোগ থাকলো না।
জানা যায়, অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা বর্তমানে প্রতিষ্ঠান প্রধান এবং ম্যানেজিং কমিটির ইচ্ছা-অনিচ্ছার উপর পাবলিক পরীক্ষার চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায়, এক বা দুই বিষয়ে ফেল করলে নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা জরিমানা দিলেই নির্বাচনী পরীক্ষায় পাস দেখিয়ে দেওয়া হয়। এরপর শিক্ষার্থীরা চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়।
উল্লেখ্য, গত ৫ ফেব্রুয়ারি মাসে দুর্নীতি দমন কমিশন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে একটি চিঠি পাঠায়। দুদকের চিঠিতে নির্বাচনী পরীক্ষায় অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে অনিয়ম রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়।
বিষয়টি অধিদপ্তর শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অবহিত করলে গত ১৬ আগস্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ আন্ত:শিক্ষা বোর্ড সাব সমন্বয় কমিটির চেয়ারম্যান এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠায়। চিঠিতে দুদকের পাঠানো চিঠির বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles