29 C
Dhaka
Monday, April 22, 2024

সখীপুরে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়, জেলা শিক্ষা অফিসের তদন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার লাঙ্গুলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের...

সখীপুরে শালবন ছাত্র কল্যাণ সংসদের কমিটি গঠন 

নিজেস্ব প্রতিবেদক: সখীপুরের কাকড়াজান ইউনিয়নে বড়বাইদ পাড়ায়...

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কে‌টে ফেলেছেন স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের ভুঞাপু‌রে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ...

বাল্য বিয়ে না দিতে মায়েদের শপথ

সখীপুরবাল্য বিয়ে না দিতে মায়েদের শপথ
  • নিজস্ব প্রতিবেদক:
    সখীপুরে গত ৮ মার্চ নারী দিবসে কন্যাদের বাল্য বিয়ে না দিতে শপথ নিয়েছেন ২৫০ জন মা। নারী দিবস পালনের ভিন্ন রকম আয়োজনটি করেছিল ‘গুড নেইবারস্ বাংলাদেশ’ সখীপুর সিডিপি নামক একটি এনজিও সংস্থা। এদিন সংস্থাটি স্থানীয় এলাকার শিশু কন্যা ও তাদের মায়েদের নিয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা এবং আলোচনাসভার আয়োজন করে। মায়েরা ‘বাল্য বিয়েকে না করি সোনার বাংলাদেশ গড়ি, নর-নারী ঐক্য বদ্ধ দেশ হবে সমৃদ্ধ, এসো সবাই দেশ গড়ি নারী পুরুষের বৈষম্য দূর করি, আমরা সবাই শপথ করবো নারীদের সম্মান করবো, নারী হলো মায়ের জাত সবার কাছে সম্মান পাক’সহ নানা স্লোগান সংবলিত ফেস্টুন- প্লেকার্ড নিয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেন। এবারের নারী দিবসের মূল প্রতিপাদ্য ছিল ‘নারী পুরুষ সমতায় উন্নয়নের যাত্রা, বদলে যাবে বিশ্ব, কর্মে নতুন মাত্রা।’ গত বুধবার বিকালে সংস্থাটির কার্যালয় মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সখীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী সরকার রাখী। ‘গুড নেইবারস্ বাংলাদেশ’ সখীপুর সিডিপির ম্যানেজার মো. জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে সভায় সখীপুর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফিরোজা আক্তার, গজারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নূরুজ্জামান তালুকদার সংস্থাটির এডুকেশন অফিসার পুলক চন্দ্র দাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। বক্তারা উপস্থিত মায়েদের উদ্দেশ্যে নারীর অধিকার, কন্যা শিশুদের শিক্ষা গ্রহণ ও বাল্য বিয়ে নিরোধে মায়েদের ব্যাপক অগ্রণী ভূমিকা পালনের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফিরোজা আক্তার বলেন, ১৭ কোটি মানুষের দেশে নারীদের এই বিশাল অংশের কর্মক্ষম ভূমিকা জাতীয় অর্থনীতির চাকাতে গতিময় রাখছে- এটাই বাস্তবতা। এনজিও সংস্থাটি নারী ও কন্যা শিশুদের নিয়ে সচেনতামূলক বিভিন্ন কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সখীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী সরকার রাখী বলেন, ‘নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন উন্নয়নে নারীদের অংশী দারিত্বের যে পথ দেখিয়ে গেছেন, সেই পথ ধরেই উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় অধিষ্ঠিত হয়েছে নারীর ক্ষমতায়ন। তিনি বলছিলেন, কোথায় নেই নারীর সগর্ব অবস্থান- শিক্ষা থেকে রাজনীতি, বাণিজ্য থেকে শিল্প কর্ম, সাংবাদিকতা থেকে বৈমানিক, ঝুঁকিপূর্ণ মিশন থেকে সেবা ধর্মে সবখানে আছে নারীর সমুজ্জ্বল ভূমিকা। কন্যা শিশুদের মানুষের মতো মানুষ গড়ে তোলায় মায়েরাই সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারে বলেও যোগ করেন তিনি।’

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles