29 C
Dhaka
Monday, April 22, 2024

সখীপুরে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়, জেলা শিক্ষা অফিসের তদন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার লাঙ্গুলিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের...

সখীপুরে শালবন ছাত্র কল্যাণ সংসদের কমিটি গঠন 

নিজেস্ব প্রতিবেদক: সখীপুরের কাকড়াজান ইউনিয়নে বড়বাইদ পাড়ায়...

ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কে‌টে ফেলেছেন স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের ভুঞাপু‌রে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ...

সখীপুরে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম ঘিরে মাইক ভাঙচুর আহত ৩

সখীপুরসখীপুরে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম ঘিরে মাইক ভাঙচুর আহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: সখীপুরে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে মাইক ভাঙচুর ও মারধরের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় উপজেলার তক্তারচালা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনজন আহত হয়েছেন। জানা যায়, ওই দিন হাতীবান্ধা ইউনিয়ন বিএনপির কার্যালয়ে সকাল ১১টায় এক পক্ষের সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হয়। সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সহসভাপতি আহমেদ আযম খান।
এদিকে, ওই বাজারের অপর একটি স্থানে উপজেলা বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন সাবেক সভাপতি শেখ মোহাম্মদ হাবীবের নেতৃত্বাধীন বিএনপির আরেকটি পক্ষ সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম উদ্বোধনের প্রচার করতে মাইক বের করে। পরে আযম খান সমর্থিত বিএনপির নেতা-কর্মীরা মাইক ভাঙচুর করে। তারা তিনজন নেতাকর্মীকেও মারধর করে। এরা হলেন- পৌর বিএনপির সাবেক আহবায়ক নূরুল ইসলাম, সরকারি মুজিব কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি রবিউল শিকদার ও উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসের রবিন। এদের মধ্যে দুইজনকে সখীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলা বিএনপির একপক্ষের প্রস্তাবিত সাধারণ সম্পাদক ফকির আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে অপর পক্ষের সভাপতি ও সম্পাদককে আসামি করে গতকাল শুক্রবার দুপুরে সখীপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ফকির আমিনুল বলেন, হামলার কারণে আমাদের সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন করতে পারিনি।
মাইক ভাঙ্চুর ও কর্মীদের মারধর প্রসঙ্গে উপজেলা বিএনপির একাংশের সভাপতি শাজাহান সাজু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গত ১৩ জুলাই কেন্দ্রীয় বিএনপি দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে শেখ মোহাম্মদ হাবীবের প্রাথমিক সদস্যপদ স্থগিত রেখেছেন। ফলে ওদের বিএনপির পরিচয়ে মাইকিং করা ঠিক হয়নি।
সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকছুদুল আলম বলেন, এক পক্ষের একটি অভিযোগ হাতে পেয়েছি। তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

-এসএ/এসআইএস

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles