একদিনও প্রচারণায় আসলেন না বাংলাদেশ কংগ্রেসের প্রার্থী 

0
44

নিজস্ব প্রতিবেদক: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একদিনের জন্যেও প্রচারণায় আসেননি টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনের বাংলাদেশ কংগ্রেস মনোনীত প্রার্থী মোস্তফা কামাল বাদল। তিনি বাংলাদেশ পিপলস্ পার্টি (বিপিপি) নামের একটি রাজনৈতিক দলের চেয়ারম্যান। নিজ দলের নিবন্ধন না থাকায় বাংলাদেশ কংগ্রেস -এর সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে (ডাব প্রতীক) মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। সভা-সমাবেশ, মাইকিং ও উঠান বৈঠকতো দূরের কথা নির্বাচনী এলাকায় একটি পোস্টারও সাঁটানো হয়নি এই প্রতিদ্বন্দ্বীর।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আগামী ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-৮ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী মোস্তফা কামাল বাদলের বাড়ি সখীপুর উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের মুচারিয়া পাথার গ্রামে। তাঁর বাবার বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজিম উদ্দিন মিয়া ওরফে কাজী মিলিটারি। পরিবার নিয়ে থাকেন ঢাকায়। পেশায় তিনি একজন শিক্ষানবিশ আইনজীবী। এবার রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ কংগ্রেস মনোনীত প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করলেও একদিনের জন্যও তাঁকে প্রচারণার মাঠে দেখা যায়নি। এমনকি তাঁর নিজগ্রাম মোচারিয়া পাথারের লোকজনও তাঁকে প্রচারণায় দেখেনি।

আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণার শেষদিন শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টা পর্যন্ত টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনের নির্বাচনী এলাকায় মোস্তফা কামাল বাদলের ডাব প্রতীকের একটি পোস্টারও দেখা যায়নি।

গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা মুহাম্মদ মাসুদ রানা বলেন, শুনেছি আমাদের গ্রামের একজন এমপি পদে নির্বাচন করছেন। কিন্তু তাঁকে একদিনের জন্যও দেখলাম না, কোথাও তাঁর একটা পোস্টারও খোঁজে পেলাম না।

ঘটা করে নির্বাচনে দাঁড়িয়ে নীরব থাকার কারণ জানতে চাইলে মোস্তফা কামাল বাদল মোবাইল ফোনে বলেন, সব মিলিয়ে নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হচ্ছেনা। আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের মধ্যেই নির্বাচন হচ্ছে। আমাদের কাছে মনে হয়েছে নিরপেক্ষ নির্বাচন হওয়াটা আশঙ্কাজনক। তাই সবকিছু করেও প্রচারণায় নামা হয়নি। তিনি আরও বলেন, আমাদের ভোট বর্জনের সম্ভাবনাও রয়েছে। আজকালের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নেব।

টাঙ্গাইল-৮ আসনে মোট ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন কৃষক শ্রমিক জনতার লীগের বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম (গামছা), আওয়ামী লীগের অনুপম শাহজাহান জয় (নৌকা), জাতীয় পার্টির রেজাউল করিম রেজা (লাঙ্গল), বিকল্প ধারার প্রার্থী আবুল হাসেম দূর্জয় (কুলা), বাংলাদেশ কংগ্রেসের মোস্তফা কামাল বাদল (ডাব) ও তৃণমূল বিএনপির পারুল (সোনালী আঁশ)। আসনে মূল প্রতিদ্বন্দিতা হবে গামছা এবং নৌকা প্রতীকের মধ্যে। এ কারণে কাদের সিদ্দিকী ও অনুপম শাহজাহান জয় ছাড়া অন্য প্রার্থীদের প্রচারণার মাঠে পাওয়া যাচ্ছেনা। নৌকা-গামছা প্রতীক ছাড়া অন্যান্য প্রতীকের প্রার্থীদের অনেকেই এখনো চেনেন না বলেও জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

বার্তা ডেস্ক